আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

বৌদ্ধ 👊👊আইকিউ 👊👊পরীক্ষা

এই আইকিউ টেস্ট বা বুদ্ধিমত্তা যাচাইয়ের পরীক্ষা প্রথম করেছিলেন মহিন্দ স্থবির, আজ থেকে ২০০০ বছরেরও আগে, শ্রীলঙ্কার তৎকালীন রাজা দেবপ্রিয় তিষ্যকে। যদিও আইকিউ যাচাইয়ের আধুনিক পদ্ধতি শুরু হয়েছে মোটে ২০০ বছর হলো, কিন্তু বৌদ্ধধর্ম যে একটা জ্ঞানের ধর্ম, তার জন্য যে মাথায় অন্তত কিছু হলেও ঘিলু থাকতে হয়, তা এই পরীক্ষা থেকে বুঝা যায়।

সে যাই হোক, তার পরীক্ষাটা ছিল এরকম।

প্রথম পরীক্ষা – আমগাছের পরীক্ষা

———————-

মহিন্দ ভান্তে কাছেই একটা আম গাছকে দেখিয়ে জিজ্ঞেস করেছিলেন – “মহারাজ, এই গাছের কি নাম?”

“আম গাছ, ভান্তে।”

“কিন্তু মহারাজ, এই আমগাছ বাদে অন্য আমগাছ আছে, নাকি নেই?”

“আছে ভান্তে, অন্য বহু আম গাছ আছে।”

“আর এই আমগাছ এবং সেই আমগাছগুলো বাদ দিয়ে আছে কি মহারাজ অন্য গাছ?”

“আছে ভান্তে, সেগুলো কিন্তু আম গাছ নয়।”

“অন্য আমগাছ এবং আমগাছ নয় এমন গাছগুলোকে বাদ দিয়ে আর আছে কি অন্য গাছ?”

“কেবল ভান্তে এই আম গাছ আছে।”

“সাধু মহারাজ, আপনি পণ্ডিত।”

দ্বিতীয় পরীক্ষা – জ্ঞাতির পরীক্ষা

———————-

মহারাজ, আপনার জ্ঞাতি আছে কি?”

” আছে ভান্তে, বহু জন।”

“তাদের বাদ দিয়ে অন্য কোনো অজ্ঞাতিও আছে, মহারাজ?”

“ভান্তে, জ্ঞাতির চেয়ে অজ্ঞাতি তো বহুবেশি।”

“আপনার জ্ঞাতি এবং অজ্ঞাতিদেরকে বাদ দিয়ে অন্য কেউ আছে, মহারাজ?”

“কেবল আমি আছি, ভান্তে।”

তখন স্থবির “পণ্ডিত রাজা, পারবেন ধর্মকে বুঝতে” জেনে ক্ষুদ্র হাতির পদচিহ্ন উপমা সুত্র বললেন।

যদিও প্রিয়তিষ্য রাজা মার্গফল লাভ করেছিলেন বলে কোথাও উল্লেখ নেই, তবে তার ধর্মকে বুঝার যথেষ্ট মেধা ছিল তা এই পরীক্ষাগুলো থেকে বুঝা যায়।

এবার আপনাদের পালা। আপনারা যদি এই টেস্ট করতেন তাহলে কি পাস করতেন?

কী মনে হয় আপনাদের?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *