আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

দানের কারণগুলো জেনে রাখা ভালো

অঙ্গুত্তর নিকায়ের প্রথম দান সুত্রমতে লোকজন আটটি কারণে দান দেয়:

১) পৌঁছলে দান দেয়। অর্থাৎ ভিক্ষু এসেছে দেখে তৎক্ষণাৎ দান দেয়। দেব দেব বলে হয়রানি করে না।

২) ভয়ে দান দেয়। অর্থাৎ “এ তো দান করে না, পুণ্য করে না” এই নিন্দার ভয়ে, অথবা নরকে পড়ার ভয়ে দান দেয়।

৩) ‘আমাকে দিয়েছে’ বলে দান দেয়। অর্থাৎ আমাকে সে আগে এই এই জিনিস দিয়েছিল এমন উপকারের কথা চিন্তা করে দেয়।

৪) “আমাকে দেবে” বলে দান দেয়। অর্থাৎ ভবিষ্যতে প্রত্যুপকারের আশায় দেয়।

৫) “দান ভালো” বলে দান দেয়। অর্থাৎ দান হচ্ছে সাধু, সুন্দর। বুদ্ধ ইত্যাদি পণ্ডিতগণের প্রশংসিত। তাই দান দেয়।

৬) “আমি রান্না করি, এরা রান্না করে না। রান্না করেও যারা রান্না করে না তাদেরকে দান না দেয়া ঠিক নয়” বলে দান দেয়।

৭) “আমার এই দান দেয়ার মাধ্যমে কল্যাণ খ্যাতি জেগে উঠবে” বলে দান দেয়।

৮) মনের অলঙ্কার, মনের জিনিসের জন্য দান দেয়। অর্থাৎ মন পরিষ্কার হওয়ার জন্য দান দেয়।

দান মনকে কোমল করে তোলে।

যে পায় সে পেয়ে কোমল মনা হয়।

যে দেয় সেও দিয়েছে বলে কোমল মনা হয়।

এভাবে উভয়ের মন কোমল হয়।

তাই দান “অদম্যকে দমনকারী” বলা হয়ে থাকে।

তবে এই আটটি দানের মধ্যে মন পরিষ্কার হওয়ার জন্য দানই হচ্ছে উত্তম।

রেফারেন্স: চতুক্ক নিপাত: অট্ঠকাদিনিপাতপাল়ি => ৪. দান বর্গ => ১. প্রথম দান সুত্র

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *