আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

বৌদ্ধধর্মে নাস্তিকতা

আজ একটু নাস্তিকতা নিয়ে লেখা যাক। সাধারণত নাস্তিক হচ্ছে যারা সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করে না। কিন্তু বৌদ্ধধর্মে নাস্তিকতার সংজ্ঞা ভিন্ন। এখানে নাস্তিকতা নির্ণয়ের মানদণ্ড হচ্ছে চারটি বিষয় – কর্মফল, স্বর্গনরক, ভুত দেবতা, পুনর্জন্ম। এই চারটি জিনিসকে বিশ্বাস না করলে বৌদ্ধমতে আপনি নাস্তিক। আর আস্তিক হচ্ছে যারা এই চারটি জিনিসে বিশ্বাস করে। খাঁটি বৌদ্ধ মাত্রেই আস্তিক হতে […]

ভবিষ্যতে মানুষের আয়ু যখন মাত্র দশ বছর হবে

এব্যাপারে বুদ্ধ দীর্ঘ নিকায়ের চক্রবর্তী সুত্রে ভবিষ্যৎবাণী করে গেছেন। এই সুত্রমতে এক সময় আসবে যখন মানুষের আয়ু হবে মাত্র দশ বছর। আমি হিসেব করে দেখেছি সেটা হবে আরো ৬৫০০ বছর পরে। অর্থাৎ আনুমানিক ৮৫০০ খ্রিস্টাব্দে। – যদিও তখনকার মানুষের উচ্চতা কীরকম হবে সেব্যাপারে সরাসরি কোনো উল্লেখ নেই, কিন্তু বুদ্ধবংশে আমরা দেখি যে দীর্ঘায়ু বুদ্ধগণের উচ্চতাও […]

আপনাকে কেউ সমালোচনা করলে কী করবেন

ব্রহ্মজাল সুত্রে বুদ্ধ বলেছেন – হে ভিক্ষুগণ, আমাকে অন্যেরা অপ্রশংসা করলে, অথবা ধর্মের অপ্রশংসা করলে, অথবা সঙ্ঘের অপ্রশংসা করলে তাতে তোমাদের রাগ করা উচিত নয়, মন খারাপ করা উচিত নয়, খেপে যাওয়া উচিত নয়। কারণ সেরকম করলে তাতে তোমাদেরই অন্তরায়। বরং সেখানে তোমাদের অসত্যকে অসত্য হিসেবেই ব্যাখ্যা করা উচিত – এটা অসত্য, এটা অযথার্থ, এটা […]

মাছ বড় চাইলে সাগরে যাও

– credit অশিন সীহঞাণভিবংশ সেয়াদ বার্মায় অশিন সীহঞাণভিবংশ খুব জনপ্রিয় ফেসবুকে। তার একটা কবিতা আমার খুব পছন্দ হয়েছে। সেটা অনুবাদ করে দিলাম। পড়ে দেখুন – মাছ বড় চাইলে সাগরে যাও। তবে ঘূর্ণিঝড় তো থাকবেই। জীবনে তোতাপাখির মতো থেকো না। বাজপাখির মতো জীবন চালাও। তোতাপাখি কথা বলতে পারে, কিন্তু উঁচুতে উড়তে পারে না। বাজপাখি থাকে নিরব, […]

এক ধুতাঙ্গধারীর কাহিনী

ধুতাঙ্গধরদের কদর সবসময়ই সাধারণ মানুষের কাছে আলাদা। তাই লাভ প্রত্যাশী ভিক্ষুরা ধুতাঙ্গধর সাজবে সেটা তো জানা কথা। সেটা আগেও হয়েছে , বর্তমানেও হচ্ছে । অর্থকথায় আজ ছোট একটা কাহিনী চোখে পড়ল সেরকম। এক ভিক্ষু নাকি খুব লাভ খুঁজত। গ্রামের কোথায় কার কাছ থেকে কীভাবে দান পাবে সবসময় সেই ধান্ধায় থাকত। তাই তার নাম হয়েছিল গ্রামপ্রিয়। […]

মরণের পরে কী হয়?

প্রশ্নটা আসলে খুব সহজ। মরণের পরে কী হয়? কিন্তু তার উত্তর দেয়া বলতে গেলে অসম্ভব। কারণ সেটা হাতে কলমে জানার জন্য আপনার অবশ্যই আগে মরতে হবে। মরে তারপর আপনি বুঝবেন আপনার কী হচ্ছে না হচ্ছে। কিন্তু কয়জন আছে যারা মরার পরে আবার ফিরে এসে বলেছে আমার অমুক হয়েছে, সমুক হয়েছে? ডাক্তাররা হয়তো সেব্যাপারে ভালো বলতে […]

মরণকালে পুণ্যকর্মের কাহিনী

মধুঅঙ্গন গ্রামে নাকি এক তামিল দারোয়ান ভোরেই বড়শি নিয়ে গিয়ে মাছ মেরে তিন ভাগ করে একভাগ দিয়ে চাল নিত, এক ভাগ দিয়ে দই, এক ভাগ রান্না করত। এই উপায়ে পঞ্চাশ বছর প্রাণিহত্যা কর্ম করে পরবর্তীতে বুড়ো হয়ে উঠতে না পেরে বিছানায় পড়ে থাকল। সেই সময়ে গিরিবিহার নিবাসী চূলপিণ্ডপাতিক তিষ্য স্থবির “আমার চোখের সামনে এই লোকটি […]

এই কাহিনীটা পড়ে আমি না হেসে পারি নি 😅

এক সময়ে শাস্তা বেরঞ্জায় বর্ষাবাস শেষে ক্রমান্বয়ে কপিলবাস্তু নগরে গিয়ে নিগ্রোধারামে বসবাস করছিলেন। মহানাম “শাস্তা এসেছেন” শুনে শাস্তার কাছে গিয়ে অভিবাদন করে একপাশে বসে শাস্তাকে এমন বলল – “ভগবান, আমি শুনেছি ‘ভিক্ষুসঙ্ঘ নাকি বেরঞ্জায় ভিক্ষাচরণে কষ্ট পেয়েছেন।’ আমাকে চার মাস ভিক্ষুসঙ্ঘের সেবাযত্নের অনুমতি দিন। আমি ভিক্ষুসঙ্ঘের শরীরে পুষ্টি প্রবেশ করিয়ে দেব।” শাস্তা সম্মত হলেন। সে […]

পালি ত্রিপিটকের অনলাইন রেফারেন্স

অনেকেই পালি ত্রিপিটকের অনলাইন রেফারেন্স চান। কিন্তু আমি দিতে পারি না। তাই এই ওয়েবসাইটটি বানালাম। এবার আর আমার কাছে খুঁজতে হবে না। সরাসরি এই ওয়েবসাইটে গিয়ে খুঁজতে পারবেন। এটাতে পালি ত্রিপিটক পড়া যাবে বাংলা অক্ষরে, রোমান অক্ষরে এবং অবশ্যই চাকমা অক্ষরেও। এর চেয়ে খুশির খবর আর কী হতে পারে?

বৌদ্ধরা কি মূর্তিপূজারী?

লিখব না, লিখব না করেও লিখতে বসলাম। কারণ বিষয়টা কয়েকদিন ধরে মনের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে। বিষয়টা হচ্ছে আমরা বৌদ্ধরা বুদ্ধমূর্তিকে বন্দনা করি কেন? পূজা করি কেন? আরেকটা কথা হচ্ছে, অনেকেই এখানে “বুদ্ধমূর্তি” শব্দের ব্যবহারে আপত্তি তোলেন। তার বদলে তারা বুদ্ধবিম্ব বা বুদ্ধের প্রতিবিম্ব বা বুদ্ধের প্রতিমা ইত্যাদি শব্দ ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। আচ্ছা, বুদ্ধের মূর্তিকে […]