আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

অধিমাসের ব্যাপারে আমার মতামত

আমাদের ভিক্ষুদের বর্ষাবাসের সময় ঘনিয়ে এসেছে। আর বর্ষাবাস কখন শুরু হবে তাই নিয়ে অনেকেই বিভ্রান্তিতে পড়েছেন। অনেকেই আমাকে মেসেজ দিয়ে এব্যাপারে জানতে চেয়েছেন। আমি কোনো বিনয় বিশারদ নই। তবুও তারা আমার মতামত জানতে চান। আমি তাই অনেকটা নিরুপায় হয়ে গত দুতিন দিন ধরে এব্যাপারে একটু পড়াশোনা করেছি। বিশেষত বিনয়সঙ্গহ অর্থকথা এবং বিনয়লঙ্কার টীকা খুব খুঁটিয়ে […]

উচহ্লা ভান্তের মৃত্যুতে লোকজন এত সাধুবাদ দিচ্ছে কেন?

আমার হোয়াটসএ্যাপে হঠাৎ একটা মেসেজ পেলাম, গুরুদেব উচহ্লা ভান্তে নাকি মারা গেছেন। সাথে প্রমাণ হিসেবে একটা শেষ মুহুর্তের ছবি। আমি চমকে গেলাম। সেটা আবার কী কথা? এই তো কিছুদিন আগেও তিনি সিংহগর্জনে চাকমাদের ইতিহাস নিয়ে খুব সুন্দরভাবে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন। জাতির এমন আলোর দিশারী তেজোদীপ্ত একজন ভান্তে এভাবে হঠাৎ করে চলে যাবেন তা তো হতে পারে […]

সুসিম সুত্র: অর্হৎ হলেই যে সবকিছু পারবে এমন নয়

মায়ানমারে বিদর্শন ভাবনা খুব জনপ্রিয়। সেই বিদর্শনেরও আবার নানা পদ্ধতি বের হয়েছে। মহাসি পদ্ধতি, মোগোক পদ্ধতি, সুনলুন পদ্ধতি, গোয়েঙ্কা পদ্ধতি, ইত্যাদি আরো কত কী আছে। এসব পদ্ধতিতে কেবল বিদর্শন ভাবনার উপরে জোর দেয়া হয়। আমার কেন জানি এসব বিদর্শন ভাবনাকেন্দ্রে যাওয়ার উৎসাহ জাগে না। কিন্তু একদিন আমাদের ডিপ্লোমা ক্লাসে এক সেয়ামা বা মহিলা শিক্ষক আমাদেরকে […]

বার্মার ইতিহাসে তান্ত্রিক ভিক্ষুদের কথা

আমাদের ইতিহাসের ক্লাস করাচ্ছেন ড. খিন মাওন নিওত। বয়স ৯০ বছর হয়ে গেল। তাই তাকে ধরে ধরে ক্লাসে এনে বসিয়ে দিতে হয়। তিনি তার বয়স জানিয়ে দেন তিনটা আঙুল উঁচিয়ে, অর্থাৎ ৯০ বছর ৩ সপ্তাহ! সম্প্রতি তিনি বাগান নামক শহরের ইতিহাসের ব্যাপারে পড়ানো শুরু করেছেন। মায়ানমারে থেরবাদী বৌদ্ধধর্মের বিকাশ ঘটে এই বাগান শহরে। ১০৪৪ খ্রিস্টাব্দে […]

বার্মায় তান্ত্রিকতা: বিদ্যাধরদের উৎসের সন্ধানে

বার্মার তান্ত্রিকতার একটা আলাদা স্টাইল আছে। এখানে তান্ত্রিকতাকে বলা হয় অগ্গিয়, যার মানে হচ্ছে ‘আগুন নিয়ে কাজ করা’। তান্ত্রিক সাধক এখানে আগুনের মাধ্যমে বিভিন্ন ধাতুকে মূল্যবান ধাতুতে রূপান্তর করার চেষ্টা করে থাকে। উদাহরণস্বরূপ সে এমন একটা পদ্ধতি আবিষ্কারের চেষ্টা করতে থাকে যার মাধ্যমে সীসাকে রূপায় পরিণত করা যায়, পিতল পরিণত হয় সোনায়। সোজা কথায়, সে […]

বার্মায় বৌদ্ধধর্মের অবস্থা

বার্মাকে মূলত থেরবাদী বৌদ্ধধর্মের দেশ বলে মনে করা হয়ে থাকে। কিন্তু এখানে বিখ্যাত জাদী ও বিহারগুলোতে দেখা যায় লোকনাথ বা অবলোকিতেশ্বর, উপগুপ্ত ইত্যাদির বড় বড় মূর্তি। বোবো অং, বোমিন গাঁও ইত্যাদি বিদ্যাধরদের জন্য পূজার বেদী। হাতে বীণা নিয়ে সরস্বতীর মূর্তিকে দেখা যায় । লোকজনের বাড়িতে দেখা যায় বিভিন্ন স্থানীয় দেবদেবীর মূর্তি ও তাদের জন্য সাজিয়ে […]

পাঅকের আত্মহত্যা ও আমার ভাবনা

আগের পোস্টে আমি এক ইন্দোনেশিয়ান ভিক্ষু ও তার বাবা-মায়ের ব্যাপারে লিখেছিলাম। এই ভিক্ষুটি আমাকে নিয়ে গিয়েছিল পাঅক পরিয়ত্তি শিক্ষাকেন্দ্রে। গিয়ে দেখলাম সেখানে বিদেশি ভিক্ষু আছে কয়েকজন। মজার ব্যাপার হচ্ছে, দুয়েকজন বাদে তাদের সবাই আমার পরিচিত। পাঅক ভাবনাকেন্দ্রে থাকার সময়ে এদের কয়েকজনের সাথে আমার বেশ চেনাজানা হয়ে উঠেছিল। তাই অনেকদিন পরে তাদের দেখা পেয়ে মনটা খুশিতে […]

অর্হতের দেহও পচে যায় – পুনরালোচনা

কিছুদিন আগে সর্বশেষ পচ্চেক বুদ্ধের ব্যাপারে লিখেছিলাম। সর্বশেষ পচ্চেকবুদ্ধ ছিলেন মাতঙ্গ পচ্চেকবুদ্ধ। সিদ্ধার্থের জন্মের পরে এই পচ্চেকবুদ্ধ যখন পরিনির্বাণের জন্য হিমালয়ের এক পর্বতে চলে গেলেন তিনি সেখানে দেখলেন আগে পরিনির্বাপিত হওয়া এক পচ্চেক বুদ্ধের হাড়গোড় পড়ে আছে। তিনি সেগুলো খাদে ফেলে দিলেন। এরপর পাথরের উপর বসে নিজেও পরিনির্বাপিত হলেন। (সুত্তনি.অ.৭৪) এখানে বিষয়টা একটু ভেবে দেখুন। […]

ধর্মস্কন্ধ নিয়ে আলোচনা

পারাজিকা অর্থকথামতে, ধর্মস্কন্ধ হচ্ছে চুরাশি হাজার। এর মধ্যে বিরাশি হাজার হচ্ছে বুদ্ধের বাণী। দুই হাজার হচ্ছে ধর্মসেনাপতি সারিপুত্র ভান্তে ও অন্যান্য বিশিষ্ট ভান্তেদের বাণী। সেগুলোও বুদ্ধবাণী হিসেবেই গণ্য হয়। এভাবে সমগ্র বুদ্ধবচন হচ্ছে ৮৪০০০ ধর্মস্কন্ধ। তবে কোন পিটকে কতগুলো ধর্মস্কন্ধ আছে সেটা নিয়ে অনেক বিতর্ক আছে। তাই সেব্যাপারে একটু লিখতে বসলাম। সুত্রের ধর্মস্কন্ধগুলোর কথা সুত্র, […]

সমকামিতা, বিজ্ঞান ও বৌদ্ধধর্ম

আজ সকালে একজন একটা ভিডিওর লিংক পাঠালো। ভিডিওটাতে একজন মোল্লা কর্তৃক এক ছেলের যৌন হয়রানির কথা উঠে এসেছে। সোজা বাংলায় যাকে বলে সমকামিতা। আমি ইন্টারনেটে একটু খোঁজ নিলাম এব্যাপারে। উইকিপিডিয়া বলছে, সমলিঙ্গের ব্যক্তির প্রতি রোমান্টিক আকর্ষণ অথবা সমলিঙ্গের ব্যক্তির সাথে যৌনাচারকে বলা হয় সমকামিতা। বিজ্ঞানীরা নাকি এমন অস্বাভাবিক যৌনআকর্ষণের কারণ সম্পর্কে এখনো ঠিক জানেন না। […]