আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

সুসিম সুত্র: অর্হৎ হলেই যে সবকিছু পারবে এমন নয়

মায়ানমারে বিদর্শন ভাবনা খুব জনপ্রিয়। সেই বিদর্শনেরও আবার নানা পদ্ধতি বের হয়েছে। মহাসি পদ্ধতি, মোগোক পদ্ধতি, সুনলুন পদ্ধতি, গোয়েঙ্কা পদ্ধতি, ইত্যাদি আরো কত কী আছে। এসব পদ্ধতিতে কেবল বিদর্শন ভাবনার উপরে জোর দেয়া হয়। আমার কেন জানি এসব বিদর্শন ভাবনাকেন্দ্রে যাওয়ার উৎসাহ জাগে না। কিন্তু একদিন আমাদের ডিপ্লোমা ক্লাসে এক সেয়ামা বা মহিলা শিক্ষক আমাদেরকে […]

আমাদের প্রথম ডিপ্লোমা ক্লাস: সব্রহ্মক সুত্র

থেরবাদা ইউনিভার্সিটিতে আমাদের বৌদ্ধধর্মের উপরে ডিপ্লোমা ক্লাস শুরু হয়েছে। প্রথম ক্লাসটা ছিল সুত্রপিটক।  শুরুতেই একটা করে লেকচার শীট ধরিয়ে দেয়া হলো সবাইকে। দেখলাম সব্রহ্মক সুত্রের ছোট্ট এক পেজের  ইংরেজি অনুবাদ। এর আগে কখনো এই সুত্রের কথা শুনেছি বলে মনে পড়ে না। কৌতুহলী হয়ে একটু পড়ে দেখলাম। মাতাপিতাকে সেবাপূজা করার সুফলের কথা বর্ণনা করা হয়েছে সুত্রটিতে। […]

ব্রহ্মজাল সুত্রের সারসংক্ষেপ

পৃথিবীর বেশির ভাগ লোকজন আত্মা ও সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করে। বর্তমানে তিনটি প্রধান ধর্ম হচ্ছে খ্রিস্টান (২৪০ কোটি), ইসলাম (১৮০ কোটি) ও হিন্দু ধর্ম (১১৫ কোটি)। সবগুলোই আত্মা এবং সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাসী। তাহলে চিন্তা করুন তো, পৃথিবীর ৭২০ কোটি মানুষের মধ্যে ৫৩৫কোটি মানুষ বিশ্বাস করে আত্মা আছে এবং একজন সৃষ্টিকর্তা আছেন। এমনকি একবার কয়েকজন মধ্যবয়স্কা উপাসিকার কাছ […]

বর্তমানের গাড়িটানা উৎসব এবং এর সম্ভাব্য উৎপত্তি

আপনারা হয়তো দেখেছেন, কোনো বিশিষ্ট বৌদ্ধ ভিক্ষু মারা গেলে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে গাড়িটানা নামের একটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে ভিক্ষুটির মৃতদেহকে কাঁধে তুলে নিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে নাচ প্রদর্শন করা হয়। আমার কাছে বিষয়টা বরাবরই বিদঘুটে লেগেছে। একজন ভিক্ষুর মৃতদেহকে এভাবে ঘুরানোর কোনো মানে আছে? লোকজন কী যে করে আজকাল! কিন্তু ত্রিপিটক ঘাঁটতে ঘাঁটতে একটা […]

ভিক্ষু ও মেয়ে সম্পর্কিত দুটো গল্প

আমি ভিক্ষু। তাই আমার লেখায় ভিক্ষুদের নিয়ে গল্প থাকবেই। আসুন দুটো গল্প শুনি। প্রথমে মহাযানী গল্পটি বলা যাক। গল্পটি হচ্ছে এরকম – এক ভিক্ষু এক মেয়েকে বয়ে নিয়ে নদী পার করে দিল। আরেক ভিক্ষু তাকে বলল, কী ব্যাপার? তুমি তাকে বয়ে নিয়ে নদী পার করিয়ে দিলে? ভিক্ষুরা মেয়েদেরকে ধরতেও পারে না, বয়ে নেয়া তো দূরের […]

আপনারা কি জানেন সর্বশেষ পচ্চেকবুদ্ধ কে?

আপনারা হয়তো পচ্চেকবুদ্ধের নাম শুনেছেন। আপনারা হয়তো আরো শুনেছেন যে তারা বুদ্ধশূন্য কল্পে জন্মান। কিন্তু আপনারা কি জানেন এই তো আনুমানিক ২৬০০ বছর আগেও সর্বশেষ পচ্চেকবুদ্ধ হেঁটেছেন এই পৃথিবীর বুকে? আপনাদের কেমন লাগবে জানি না, তবে আমি সত্যিই অবাক হয়েছি। কখনো ভাবিনি পচ্চেকবুদ্ধগণ এই মাত্র ২৬০০ বছর আগেও পৃথিবীতে বেঁচেছিলেন। সুত্তনিপাত অর্থকথামতে, সর্বশেষ পচ্চেকবুদ্ধ ছিলেন […]

২৫ প্রকার ভয়

ক্ষমাপ্রার্থনায় সাধারণত বলা হয়, তিরতনেসু কাযেন বাচায় মনসাপিচ পমাদেন কতং ভন্তে সব্বদোসং খমন্তু মে … ইত্যাদি। এর অর্থ হচ্ছে ত্রিরত্নের প্রতি দৈহিক, বাচনিক ও মানসিকভাবে কৃত আমার সকল দোষ ক্ষমা করুন, ভান্তে। এরপর প্রার্থনা করা হয়, ত্রিরত্নের প্রতি করজোড়ে বন্দনাজনিত কর্মের প্রভাবে সর্বদা অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক ৯৬ প্রকার রোগ, ৩২ প্রকার দৈহিক শাস্তি, ২৫ প্রকার […]

৩২ প্রকার দৈহিক শাস্তি

অনেকদিন ধরে অনেকেই জানতে চেয়েছে ৰাত্তিংসকম্মকারণা বা ৩২ প্রকার দৈহিক শাস্তি কী কী। গতকাল একটু খুঁজে খুঁজে বের করলাম সেগুলো। তবে এখানে শুধু ২৬টি শাস্তির কথা আছে। কিন্তু ৩২টি শাস্তির কথা বলা হয় কেন তা আমার জানা নেই। চাবুক ইত্যাদি মারা এবং হাতপা কেটে দেয়া ইত্যাদির সমন্বয়ে ৩২টি হয় বলে আমার ধারণা। সে যাই হোক, […]

মানুষের অধঃপতন হয় কীসে?

একজনের অনুরোধে আজ পরাভব সুত্র অর্থকথাসহ লিখতে বসলাম। পরাভব মানে হচ্ছে পরিহানি, অধঃপতন বা ধ্বংস। মানুষের জীবনে কী কী কারণে অধঃপতন বা ধ্বংস নেমে আসে সেব্যাপারে এক দেবপুত্র এক রাতে এসে ভগবান বুদ্ধকে জিজ্ঞেস করেছিল। বুদ্ধ তখন শ্রাবস্তীর জেতবনে অবস্থান করছিলেন। এর আগের রাতে তিনি দেবতাদেরকে মঙ্গলসুত্র দেশনা করেছিলেন। সেই মঙ্গলের কথাগুলো শুনে দেবতাদের নাকি […]

ভিক্ষুর জেগে থাকার নিয়ম কী?

একজন মেসেজ দিয়ে জানতে চাইল ভিক্ষু কীভাবে জাগরণে নিযুক্ত হয় সেটা যেন আমি অর্থকথা থেকে ব্যাখ্যা করে দিই। অর্থাৎ ভিক্ষুর জেগে থাকার নিয়ম কী? সেটার জন্য অর্থকথায় যেতে হবে না। ত্রিপিটকেরই মধ্যম নিকায়ের মূলপঞ্চাশকে মহাঅশ্বপুর সুত্র (ম.নি.৪১৫-৪৩৪) আছে। সেখানে বলা হয়েছে, ভিক্ষুর এভাবে পরিকল্পনা করা উচিত, ‘জাগরণে নিযুক্ত হবো। সারা দিন চঙ্ক্রমণে ও বসে বসে […]