আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

টাকা দানের বিনয়সম্মত নিয়ম

আজ আমার পরিচিত একজন এসে ১০০ ডলার দিতে চাইল। সে বলল, ভান্তে, আমি জানি আপনি টাকা পয়সা রাখেন না। কিন্তু এই টাকা আপনার জন্যই পাঠানো হয়েছে। আপনি শুধু বলুন এই টাকা কার কাছে দেব। আমি পড়ে গেলাম বিপদে। বিনয়ের নিয়ম অনুসারে এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হলে ভিক্ষুকে চুপ করে থাকতে হয়। নতুবা সরাসরি প্রত্যাখান করে দিতে হয়। কারণ ভিক্ষুরা নিজেরা সরাসরি টাকাপয়সা গ্রহণ করতে পারে না তো বটেই, এমনকি বলতেও পারে না অমুককে দাও। ওখানে রাখ। অথবা ব্যাগ খুলে দিয়ে, অথবা ডায়েরি ফাঁক করে, অথবা দানবাক্স দেখিয়ে বলতে পারে না, এখানে রেখে দাও। এটাই বিনয়ের নিয়ম।

বিনয়সম্মতভাবে টাকা দিতে চাইলে ভিক্ষুকে জিজ্ঞেস করা উচিত, ভান্তে আপনার কপ্পিয়কারক আছে কি? তার হাতে আমরা টাকা দেব, আপনার কোনো কিছু লাগলে সে তখন সেই টাকা দিয়ে তার ব্যবস্থা করে দিতে পারবে। তখন ভিক্ষুটি চেনাপরিচিত কোনো একজনকে কপ্পিয়কারক হিসেবে দেখিয়ে দিতে পারে। দায়কেরা তখন সেই কপ্পিয়কারকের কাছে টাকাটা দিয়ে বলে দেবে, এই টাকাটা অমুক ভান্তের জন্য। ভান্তের যা কিছু লাগে আপনি এই টাকা দিয়ে ব্যবস্থা করে দেবেন। কপ্পিয়কারককে টাকা দেয়ার পরে ভান্তেকেও জানিয়ে দেয়া দরকার, ভান্তে, আপনার কপ্পিয়কারকের কাছে এত টাকা পাঠিয়ে দিয়েছি। আপনার কোনো কিছু লাগলে তাকে বলবেন। সে তার ব্যবস্থা করে দেবে। এটাই হচ্ছে ভিক্ষুকে টাকা দেয়ার বিনয়সম্মত পদ্ধতি।

আমরা সবসময়ই প্রার্থনা করি, বুদ্ধশাসন দীর্ঘকাল টিকে থাকুক। কিন্তু অনেকেই হয়ত ভুলে যাই যে, বুদ্ধশাসন টিকে থাকে বিনয় নিয়মপালনকারী ভিক্ষুদের দ্বারা। প্রাচীন ভান্তেরা বলে গেছেন, লজ্জাশীল ভিক্ষুরাই বুদ্ধশাসনকে রক্ষা করবে। বিনয় নিয়ম পালনকারী সেরকম লজ্জাশীল ভিক্ষু হয়তো বর্তমানে সংখ্যায় হাতেগোণা, কিন্তু এই ঝলমলে চোখ ধাঁধানো বিশ্বের আড়ালে নিরবে নিভৃতে বিনয় নিয়ম পালনকারী ভিক্ষুদের দ্বারাই বুদ্ধশাসন টিকে ছিল, টিকে থাকবে। তাই বৌদ্ধধর্মের প্রতি যেসব দরদী ভিক্ষু ও দায়কদায়িকা আছেন,তারা এভাবেই বিনয়সম্মতভাবে দান করুন। বিনয় পালনকারী ভিক্ষুদেরকে এভাবেই সাহায্য করুন। প্রাচীন এই বৌদ্ধধর্ম টিকে থাকুক সগৌরবে দীর্ঘকাল ধরে। ততকাল যাবত অগণিত দেবতা ও মানুষের পুণ্যলাভের সুযোগ হোক।

1 thought on “টাকা দানের বিনয়সম্মত নিয়ম

  1. ভন্তে, বৌদ্ধ পতায়ান সাইজ হদ্দুর গরি সিলে পারে আ হুদুহুদু ব্যবহার গরি পারে সিয়ানি এক্কা জানেলে দোল অবদে।

    কাউখালি মিদিঙেছুড়িত এক্কো ভন্তেয়ে মঞ্চত পিচ্ছেদি ব্যানার দেদে ১০০ ফুট লাম্বা। দেক্কেও বিচ্চিরি। আজলে পারে না ন পারে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *