আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

বৌদ্ধধর্মে সৃষ্টিতত্ত্ব – ১ম পর্ব: শুরু হোক এক যোজন দিয়ে

এক যোজন সমান কত? অনেকে অনেক কথা বলে। কেউ বলে ৬ মাইল, কেউ বলে ৯ মাইল। উইকিপিডিয়া বলছে, এক যোজন = ১২ কিলোমিটার। কিন্তু কীভাবে বুঝব উইকিপিডিয়ার কথা ঠিক? উইকিপিডিয়াকে আমি তেমন বিশ্বাস করি না। সেখানে অনেক উল্টোপাল্টা তথ্যও থাকে। তার চেয়ে বরং গুগল ম্যাপে মেপে দেখি। গুগল ম্যাপ খুব নিখুঁত। এতে এক জায়গা থেকে আরেক জায়গার মধ্যে রাস্তার দূরত্ব কত হবে তা দেখায়। কিন্তু সেটা তো এই আমলের রাস্তার দূরত্ব। আমাদের জানতে হবে বুদ্ধের আমলের রাস্তার দূরত্ব। ২৫০০ বছর আগে বুদ্ধের আমলেও কি লোকজন সেই একই পথে হেঁটেছে? একই পথে আসা যাওয়া করেছে? মনে তো হয় না। রাস্তা বদলায়। বিভিন্ন কারণে বদলায়। তাই দীর্ঘপথ মাপলে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি। ছোট রাস্তা মাপতে হবে। মাপতে হবে এক যোজন রাস্তা। এক যোজন রাস্তার রেফারেন্স কি ত্রিপিটকে আছে? আছে আছে। দীর্ঘনিকায় অর্থকথা বলছে, ‘রাজগহতো পন নাল়ন্দা যোজনমেৰ’ (দীঘ.অ.০১.১)। অর্থাৎ রাজগির থেকে নালন্দার দূরত্ব এক যোজন মাত্র।

গুগল ম্যাপ খুলে তাই আমি প্রথমে মাপলাম নালন্দা থেকে রাজগিরের দূরত্ব। ম্যাপে নালন্দা থেকে রাজগিরের সরাসরি দূরত্ব দেখাল ১২.৬৮ কিলোমিটার। অর্থাৎ ৭.৮৮ মাইল বা ৮ মাইলের কাছাকাছি। তাই এক যোজন = ১২ কিলোমিটার ধরা যায়।

রাজগির থেকে নালন্দা
রাজগির থেকে নালন্দা

তবে কেবল একটা জায়গা মাপলে হবে না। আরো কয়েকটা জায়গার দূরত্ব মেপে দেখা দরকার। তাই কাছাকাছি আরো দুয়েকটা জায়গার নাম খুঁজে দেখলাম ত্রিপিটক ও অর্থকথায়। সবচেয়ে কম দূরত্ব পেলাম শ্রাবস্তী ও সাকেত নগরীর মধ্যে। ধর্মপদ অর্থকথা বলছে, কীৰ দূরো ইতো সাৰত্থী’’তি? ‘‘সত্তযোজনমত্থকে’’তি (ধ.অ.=>৪.পুপ্ফৰগ্গ=> ৮.ৰিসাখাৰত্থু)। অর্থাৎ এখান (সাকেত) থেকে শ্রাবস্তী কতদূর? সাত যোজনের মাথায়। তার মানে হচ্ছে, অর্থকথা অনুসারে শ্রাবস্তী থেকে সাকেত নগরীর দূরত্ব হচ্ছে ৭ যোজন বা ৮৪ কিলোমিটার। আমাদের দেখতে হবে গুগল ম্যাপে তাদের দূরত্ব ৮৪ কিলোমিটারের কাছাকাছি হয় কিনা।

সাকেত নগরী এখন অযোধ্যা নামে পরিচিত। শ্রাবস্তী ও অযোধ্যা দুটোই ভারতের উত্তর প্রদেশে। গুগল ম্যাপে তাদের রাস্তার দূরত্ব দেখাল ৯৯ কিলোমিটার বা ৮ যোজনের মতো। কিন্তু সরাসরি দূরত্ব দেখাল ৮০ কিলোমিটার বা ৭ যোজনের কাছাকাছি। অর্থাৎ সোজাসুজি গেলে ৮০ কিলোমিটার, সড়কপথে আঁকাবাঁকা পথ ধরে গেলে ৯৯ কিলোমিটার। তাহলে যোজনের হিসেবে এর দূরত্ব দাঁড়ায় ৭ থেকে ৮ যোজন। এই হিসেবে ১ যোজন = ১২ কিলোমিটার মোটামুটি ঠিকই আছে।

শ্রাবস্তী থেকে অযোধ্যা
শ্রাবস্তী থেকে অযোধ্যা

একটা হিসাব ফুরালো। এবার এটাকে ভিত্তি করেই আমি দেখাব বৌদ্ধধর্মমতে সৃষ্টির রহস্যকে। সেটা জানতে পারবেন আমার পরবর্তী লেখাগুলোতে। কথা হবে আবারও। সবার জন্য শুভকামনা রইল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *