আমার ফেসবুকের লেখাগুলো – My facebook Writings

সৃষ্টিকর্তা যদি নাই থাকে তাহলে আমাদের প্রথম শুরুটা হলো কীভাবে?

আপনারা হয়তো জানেন যে ইহুদি, খ্রিস্টান, মুসলিম, হিন্দু ও অন্যান্য অনেক ধর্মমতে একজন সৃষ্টিকর্তা আছেন। তিনি এই পৃথিবী, আকাশ, মাটি, পানি, সাগর, জীবজগত সৃষ্টি করেছেন। তিনি আপনাকে আমাকে সৃষ্টি করে এই জগতে পাঠিয়েছেন। কিন্তু বৌদ্ধধর্মমতে সেটা একটা ভ্রান্ত ধারণা মাত্র। বৌদ্ধধর্মমতে কোনো সৃষ্টিকর্তা নেই। আমি সে ব্যাপারে পরবর্তী পোস্টগুলোতে বিস্তারিত আলোচনা করব। এখন শুধু অনেকের জিজ্ঞাস্য একটি প্রশ্নের ব্যাপারে আলোচনা করছি। সেটা হচ্ছে, সৃষ্টিকর্তা যদি না থাকে, তাহলে আমরা যে বার বার জন্মাচ্ছি এর শুরু হলো কবে থেকে? প্রথম কীভাবে শুরু হলো আমাদের এই দেহমনের প্রবাহ?

বুদ্ধ এব্যাপারে বার বার বলে দিয়েছেন, হে ভিক্ষুগণ, অজ্ঞানতার অন্ধকারে আচ্ছন্ন, তৃষ্ণার বন্ধনে আবদ্ধ প্রাণিদের এই সংসারচক্রে ভ্রমণ প্রথম কবে থেকে শুরু হলো তা দেখা যায় না। সংযুক্ত নিকায়ের শ্রাবকসুত্রে (স.নি.২.১৩০) বুদ্ধ এর একটা উদাহরণ দিয়েছেন এভাবে। ধরা যাক চারজন দিব্যদৃষ্টিসম্পন্ন ব্যক্তি রয়েছে যাদের প্রত্যেকের আয়ু হচ্ছে একশ বছর করে। তাদের একেকজন এক লাখ কল্প স্মরণ করতে পারে। এভাবে চারজনে মিলে প্রতিদিন তারা চার লাখ কল্পের আগের কথা স্মরণ করতে পারে। কিন্তু এভাবে স্মরণ করতে করতে তাদের একশ বছর আয়ু শেষ হয়ে যাবে তবুও তাদের অতীতের প্রথম সৃষ্টির দেখা তারা পাবে না। এমনই অনন্ত হচ্ছে এই দেহমনের প্রবাহ।

বুঝার সুবিধার্থে আমি তাহলে এবার সহজ একটা ব্যাখ্যা দিই। আপনারা হয়তো সংখ্যারেখার ব্যাপারে জানেন। না জানলে ছবিতে দেখুন। খুবই সহজ সরল একটি রেখা। এর মাঝখানে রয়েছে শূন্য। বামে নেগেটিভ সংখ্যাগুলো এবং ডানে পজিটিভ সংখ্যাগুলো অসীম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর মানে হচ্ছে সংখ্যাগুলো বামে অসীম থেকে শুরু হয়েছে এবং ডানে অসীমে গিয়ে শেষ হয়েছে।

সংখ্যারেখা
সংখ্যারেখা

এখানে নেগেটিভ সংখ্যাগুলো অতীত জন্মকে নির্দেশ করছে। পজিটিভ সংখ্যাগুলো ভবিষ্যৎ জন্মগুলোকে নির্দেশ করছে। আর শূন্য হচ্ছে বর্তমান জন্মটা। কাজেই আপনি চাইলেই এখান থেকে এক লাখ বা এক কোটিতম জন্মকে খুঁজে নিতে পারেন। শুধু সংখ্যাটা বলতে হবে। সেই সংখ্যা ধরে এগোলেই আপনি আপনার সেই অতীত বা ভবিষ্যৎ জন্মটাকে সংখ্যারেখায় পেয়ে যাবেন। খুবই সহজ, তাই না? কিন্তু যদি জিজ্ঞেস করেন, ‘এই সংখ্যারেখার শুরুটা কোথায়?’ তাহলে এর জবাব পাবেন, ‘অসীমে’। কারণ নেগেটিভ সংখ্যাগুলো শুরু হয়েছে অসীম থেকে! তাই অতীত জন্মের প্রথম শুরুও হয়েছে অসীমে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *